ঢাকা ০৮:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

স্ত্রীকে ভিডিও কলে রেখে প্রবাসীর আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

স্ত্রীকে ভিডিও কলে রেখে স্বামীর আত্মহত্যা
রাজধানীর খিলগাঁওয়ের দক্ষিণ নন্দীপাড়ায় মো. আব্দুর রহিম (৪৫) নামে এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার। তিনি সিএনজি চালক বলে জানিয়েছেন তার স্বজনরা।

সোমবার (১ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে অচেতন অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে আনা হলে জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক রাত সাড়ে ১০টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

আব্দুর রহিম শরিয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার মধুপুরা গ্রামের রফিজ উদ্দিনের ছেলে। বর্তমানে তিনি খিলগাঁওয়ের দক্ষিণ নন্দীপাড়ার ১০ নম্বর বাড়ির টিনশেডের বাসায় ভাড়া থাকতেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন খিলগাঁও থানার এসআই মো. শিহাব বাহাদুর।

তিনি বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলের বাসা থেকে গলায় গামছা প্যাঁচানো ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসি। আনার পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞেস করে জানা যায়- আব্দুর রহিমের স্ত্রী জাকিয়া বেগম জর্ডান প্রবাসী। ১০-১৫ দিন আগে তিনি দেশে ফিরে আসেন। পারিবারিক কলহের জেরে তার স্ত্রী মিরপুরে বড় বোনের বাসায় চলে যায়। পরে সন্ধ্যার দিকে রহিম স্ত্রীকে ভিডিও কল দেয়। স্ত্রীকে ভিডিও কলে রেখে গলায় গামছা পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে পড়ে। পরে স্ত্রী বিষয়টি সবাইকে জানালে পুলিশকে খবর দেওয়া হলে আমরা এসে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করি। এর পর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Renaissance

আমাদের ওয়েসাইটে আপনাকে স্বাগতম। আপনাদের আশে পাশের সকল সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করুন
আপডেট সময় ০৮:৪৯:৪৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জানুয়ারী ২০২৪
৮৪ বার পড়া হয়েছে

স্ত্রীকে ভিডিও কলে রেখে প্রবাসীর আত্মহত্যা

আপডেট সময় ০৮:৪৯:৪৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জানুয়ারী ২০২৪

স্ত্রীকে ভিডিও কলে রেখে স্বামীর আত্মহত্যা
রাজধানীর খিলগাঁওয়ের দক্ষিণ নন্দীপাড়ায় মো. আব্দুর রহিম (৪৫) নামে এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার। তিনি সিএনজি চালক বলে জানিয়েছেন তার স্বজনরা।

সোমবার (১ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে অচেতন অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে আনা হলে জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক রাত সাড়ে ১০টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

আব্দুর রহিম শরিয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার মধুপুরা গ্রামের রফিজ উদ্দিনের ছেলে। বর্তমানে তিনি খিলগাঁওয়ের দক্ষিণ নন্দীপাড়ার ১০ নম্বর বাড়ির টিনশেডের বাসায় ভাড়া থাকতেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন খিলগাঁও থানার এসআই মো. শিহাব বাহাদুর।

তিনি বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলের বাসা থেকে গলায় গামছা প্যাঁচানো ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসি। আনার পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞেস করে জানা যায়- আব্দুর রহিমের স্ত্রী জাকিয়া বেগম জর্ডান প্রবাসী। ১০-১৫ দিন আগে তিনি দেশে ফিরে আসেন। পারিবারিক কলহের জেরে তার স্ত্রী মিরপুরে বড় বোনের বাসায় চলে যায়। পরে সন্ধ্যার দিকে রহিম স্ত্রীকে ভিডিও কল দেয়। স্ত্রীকে ভিডিও কলে রেখে গলায় গামছা পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে পড়ে। পরে স্ত্রী বিষয়টি সবাইকে জানালে পুলিশকে খবর দেওয়া হলে আমরা এসে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করি। এর পর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।