ঢাকা ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

রোজার আগেই উপজেলা নির্বাচন

নিজস্ব সংবাদ :

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেছেন, রমজানের আগেই প্রথম ধাপে উপজেলা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন।

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান।

অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ধাপে ধাপে হবে। এই মাসের শেষের দিকে প্রথম ধাপের তফসিল হবে। রোজার পরে আরেকটা তফসিল হবে। এভাবে কয়েকটি ধাপে অনুষ্ঠিত হবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।

তিনি জানান, মোট ৪০০টির বেশি উপজেলায় নির্বাচন হবে। তবে কয় ধাপে উপজেলার নির্বাচন হবে এ বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এর আগে, সবশেষ ২০১৯ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন পাঁচ ধাপে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এর মধ্যে বিভাগওয়ারি ৪টি ধাপে এবং যেসব উপজেলার মেয়াদ পরে পূর্ণ হয়েছিল সেগুলো নিয়ে আরেকটি ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন করেছিল কে এম নুরুল হুদা কমিশন। ওই নির্বাচনে ব্যাপক সহিংসতা হয়েছিল। শতাধিক মানুষের প্রাণহানিও ঘটে ওই নির্বাচনে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Renaissance

আমাদের ওয়েসাইটে আপনাকে স্বাগতম। আপনাদের আশে পাশের সকল সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করুন
আপডেট সময় ০৯:১৬:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২৪
১৮ বার পড়া হয়েছে

রোজার আগেই উপজেলা নির্বাচন

আপডেট সময় ০৯:১৬:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২৪

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেছেন, রমজানের আগেই প্রথম ধাপে উপজেলা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন।

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান।

অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ধাপে ধাপে হবে। এই মাসের শেষের দিকে প্রথম ধাপের তফসিল হবে। রোজার পরে আরেকটা তফসিল হবে। এভাবে কয়েকটি ধাপে অনুষ্ঠিত হবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।

তিনি জানান, মোট ৪০০টির বেশি উপজেলায় নির্বাচন হবে। তবে কয় ধাপে উপজেলার নির্বাচন হবে এ বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এর আগে, সবশেষ ২০১৯ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন পাঁচ ধাপে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এর মধ্যে বিভাগওয়ারি ৪টি ধাপে এবং যেসব উপজেলার মেয়াদ পরে পূর্ণ হয়েছিল সেগুলো নিয়ে আরেকটি ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন করেছিল কে এম নুরুল হুদা কমিশন। ওই নির্বাচনে ব্যাপক সহিংসতা হয়েছিল। শতাধিক মানুষের প্রাণহানিও ঘটে ওই নির্বাচনে।