ঢাকা ০৮:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

বাংলাদেশে নির্বাচন ঘিরে দমনপীড়নে জাতিসংঘের ক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশে আগামীকাল রোববার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন। এই নির্বাচন ঘিরে দমনপীড়নমূলক পরিবেশ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের শান্তিপূর্ণ সমাবেশের স্বাধীনতা ও সংগঠনের অধিকারবিষয়ক বিশেষ র‌্যাপোর্টিয়ার ক্লেমেন্ট এন ভৌল। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

শুক্রবার নিজের অফিসিয়াল এক্স (আগের টুইটার) অ্যাকাউন্ট থেকে ক্লেমেন্ট এন ভৌল লিখেছেন—

‘বাংলাদেশে রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও নাগরিক সমাজের ওপর দমন-পীড়ন বন্ধের জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে আমরা একাধিকবার আহ্বান জানিয়েছি। এর পরও আসন্ন নির্বাচন ঘিরে যে দমনমূলক পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে, তাতে আমি খুবই বিরক্ত।’

পরবর্তী আরেক এক্স হ্যান্ডলে ক্লেমা ভুলে লিখেছেন— ‘ভিন্নমত দমনে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, বিক্ষোভকারী ও বিরোধীদের অপরাধী সাব্যস্ত করা, পুলিশ বাহিনীর বাড়াবাড়ি ব্যবহার এবং সহিংসতা থেকে বিরত থাকতে আমি আগেও যে আহ্বান জানিয়েছিলাম, তা পুনরায় জানাচ্ছি।’

নির্বাচনকালীন পরিস্থিতি নিয়ে সর্বশেষ এক্স হ্যান্ডলে জাতিসংঘের এই কর্মকর্তা লেখেন— ‘নির্বাচনের আগে, নির্বাচনকালে ও পরে শান্তিপূর্ণ সমাবেশের অধিকার এবং রাজনৈতিক অধিকার নিশ্চিত করার দায়িত্ব কর্তৃপক্ষের।’

নির্বাচনের আগে, নির্বাচন চলাকালীন এবং নির্বাচনের পর শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও সমিতির অধিকার এবং রাজনৈতিক অংশগ্রহণের অধিকার নিশ্চিত করার দায়িত্ব রয়েছে কর্তৃপক্ষের।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Renaissance

আমাদের ওয়েসাইটে আপনাকে স্বাগতম। আপনাদের আশে পাশের সকল সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করুন
আপডেট সময় ০৩:০২:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জানুয়ারী ২০২৪
২২ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশে নির্বাচন ঘিরে দমনপীড়নে জাতিসংঘের ক্ষোভ

আপডেট সময় ০৩:০২:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জানুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশে আগামীকাল রোববার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন। এই নির্বাচন ঘিরে দমনপীড়নমূলক পরিবেশ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের শান্তিপূর্ণ সমাবেশের স্বাধীনতা ও সংগঠনের অধিকারবিষয়ক বিশেষ র‌্যাপোর্টিয়ার ক্লেমেন্ট এন ভৌল। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

শুক্রবার নিজের অফিসিয়াল এক্স (আগের টুইটার) অ্যাকাউন্ট থেকে ক্লেমেন্ট এন ভৌল লিখেছেন—

‘বাংলাদেশে রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও নাগরিক সমাজের ওপর দমন-পীড়ন বন্ধের জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে আমরা একাধিকবার আহ্বান জানিয়েছি। এর পরও আসন্ন নির্বাচন ঘিরে যে দমনমূলক পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে, তাতে আমি খুবই বিরক্ত।’

পরবর্তী আরেক এক্স হ্যান্ডলে ক্লেমা ভুলে লিখেছেন— ‘ভিন্নমত দমনে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, বিক্ষোভকারী ও বিরোধীদের অপরাধী সাব্যস্ত করা, পুলিশ বাহিনীর বাড়াবাড়ি ব্যবহার এবং সহিংসতা থেকে বিরত থাকতে আমি আগেও যে আহ্বান জানিয়েছিলাম, তা পুনরায় জানাচ্ছি।’

নির্বাচনকালীন পরিস্থিতি নিয়ে সর্বশেষ এক্স হ্যান্ডলে জাতিসংঘের এই কর্মকর্তা লেখেন— ‘নির্বাচনের আগে, নির্বাচনকালে ও পরে শান্তিপূর্ণ সমাবেশের অধিকার এবং রাজনৈতিক অধিকার নিশ্চিত করার দায়িত্ব কর্তৃপক্ষের।’

নির্বাচনের আগে, নির্বাচন চলাকালীন এবং নির্বাচনের পর শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও সমিতির অধিকার এবং রাজনৈতিক অংশগ্রহণের অধিকার নিশ্চিত করার দায়িত্ব রয়েছে কর্তৃপক্ষের।