ঢাকা ০৯:৫২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দোহারে শিশুদের দিয়ে জালভোট দেওয়ার অভিযোগ নৌকা প্রার্থীর বিরুদ্ধে

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকা-১ আসনের দোহারে শিশুদের দিয়ে ভোট দেওয়ানোর অভিযোগ উঠেছে নৌকা প্রার্থী সালমান এফ রহমানের বিরুদ্ধে।

সরেজমিনে রোববার সকালে শাহিনপুকুরের একটি ভোট কেন্দ্রে এমন দৃশ্য ধরা পড়েছে। ক্যামেরা দেখেই দৌড়ে পালিয়ে যায় কয়েকজন জাল ভোটার।

রোববার সকাল ৮টা থেকেই সারাদেশের মতো দোহারের শাহিনপুকুরের ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটগ্রহণ কার্যক্রম শুরু হয়।

কেন্দ্রটিতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ভোট প্রদানের বয়স না হলেও অনেক শিশু ঢুকছে কেন্দ্রের ভোট প্রদানের জন্য নির্ধারিত ঘরে। সেখানে পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদেরও দেখা যায়নি। অনেক জাল ভোটার কেন্দ্রটিতে ভোট দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে।

তবে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি পুরো বিষয়টিই অস্বীকার করেন। ভোট কক্ষে একজন করে প্রবেশ করানো হচ্ছে বলেও দাবি করেন এই প্রিজাইডিং কর্মকর্তা। তবে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ভোট কক্ষে অবস্থান করছেন একাধিক ‘ভোটার’।

এর আগে, এই আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী সালমা ইসলামের দুই সমর্থককে বেধড়ক মারধর করে পুলিশে দেয়ার অভিযোগ ওঠে নৌকার সমর্থকদের বিরুদ্ধে। শনিবার সন্ধ্যায় দোহারের মুকসুদপুরের ফুলতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সন্ধ্যায় ভোট কেন্দ্রে যারা দায়িত্ব পালন করবেন সেসব পোলিং এজেন্টদের থাকা ও খাওয়া খরচ নিয়ে লাঙ্গলের এই দুই কর্মী বাংলাবাজার থেকে ফুলতলায় যাচ্ছিলেন। এ সময় ওই দু’জনকে বেদম মারধর করে তাদের মোবাইল ফোন আর সঙ্গে থাকা খরচের টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়। এর পর বেশ কিছুক্ষণ তাদের খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরে মুকসুদপুরের এক ফাঁড়িতে তাদের বিরুদ্ধে ভোট কেনার টাকা বিতরণের অভিযোগ করে ছাত্রলীগ নেতা সোহাগ ও তার সমর্থকরা।

পরে, ম্যাজিস্ট্রেট উল্টো নির্যাতিত ভুক্তভোগীদের পুলিশ হেফাজতে দিয়ে দেয়। অবশ্য পরে লাঙ্গলের প্রার্থীদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের মুক্তি দেন ভ্রাম্যমান আদালত।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Renaissance

আমাদের ওয়েসাইটে আপনাকে স্বাগতম। আপনাদের আশে পাশের সকল সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করুন
আপডেট সময় ০১:০৯:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪
৫৫ বার পড়া হয়েছে

দোহারে শিশুদের দিয়ে জালভোট দেওয়ার অভিযোগ নৌকা প্রার্থীর বিরুদ্ধে

আপডেট সময় ০১:০৯:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪

ঢাকা-১ আসনের দোহারে শিশুদের দিয়ে ভোট দেওয়ানোর অভিযোগ উঠেছে নৌকা প্রার্থী সালমান এফ রহমানের বিরুদ্ধে।

সরেজমিনে রোববার সকালে শাহিনপুকুরের একটি ভোট কেন্দ্রে এমন দৃশ্য ধরা পড়েছে। ক্যামেরা দেখেই দৌড়ে পালিয়ে যায় কয়েকজন জাল ভোটার।

রোববার সকাল ৮টা থেকেই সারাদেশের মতো দোহারের শাহিনপুকুরের ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটগ্রহণ কার্যক্রম শুরু হয়।

কেন্দ্রটিতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ভোট প্রদানের বয়স না হলেও অনেক শিশু ঢুকছে কেন্দ্রের ভোট প্রদানের জন্য নির্ধারিত ঘরে। সেখানে পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদেরও দেখা যায়নি। অনেক জাল ভোটার কেন্দ্রটিতে ভোট দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে।

তবে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি পুরো বিষয়টিই অস্বীকার করেন। ভোট কক্ষে একজন করে প্রবেশ করানো হচ্ছে বলেও দাবি করেন এই প্রিজাইডিং কর্মকর্তা। তবে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ভোট কক্ষে অবস্থান করছেন একাধিক ‘ভোটার’।

এর আগে, এই আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী সালমা ইসলামের দুই সমর্থককে বেধড়ক মারধর করে পুলিশে দেয়ার অভিযোগ ওঠে নৌকার সমর্থকদের বিরুদ্ধে। শনিবার সন্ধ্যায় দোহারের মুকসুদপুরের ফুলতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সন্ধ্যায় ভোট কেন্দ্রে যারা দায়িত্ব পালন করবেন সেসব পোলিং এজেন্টদের থাকা ও খাওয়া খরচ নিয়ে লাঙ্গলের এই দুই কর্মী বাংলাবাজার থেকে ফুলতলায় যাচ্ছিলেন। এ সময় ওই দু’জনকে বেদম মারধর করে তাদের মোবাইল ফোন আর সঙ্গে থাকা খরচের টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়। এর পর বেশ কিছুক্ষণ তাদের খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরে মুকসুদপুরের এক ফাঁড়িতে তাদের বিরুদ্ধে ভোট কেনার টাকা বিতরণের অভিযোগ করে ছাত্রলীগ নেতা সোহাগ ও তার সমর্থকরা।

পরে, ম্যাজিস্ট্রেট উল্টো নির্যাতিত ভুক্তভোগীদের পুলিশ হেফাজতে দিয়ে দেয়। অবশ্য পরে লাঙ্গলের প্রার্থীদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের মুক্তি দেন ভ্রাম্যমান আদালত।