ঢাকা ০৩:০৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

চৌদ্দগ্রামে পুকুরের মালিকানা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা

নিজস্ব সংবাদ :

কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাতিসা দেবীপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফার যৌথ মালিকানা পুকুরকে কেন্দ্র কওে প্রতিপক্ষের হামলায় ৩জন গুরুতর আহত হয়েছে। এঘটনায় চৌদ্দগ্রাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়।
অভিযোগের আলোকে জানা যায়- বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফা বসত বাড়ির সামনে একটি পুকুর রয়েছে। উক্ত পুকুরের মালিকানা নিয়ে একই গ্রামের মেহরাজ মজুমদার, শিপন মজুদার, ফয়সাল আহমেদ, রাতুল মজুমদার ও কামরুল হাসান রবিন গংদেও সাথে বিরোধ চলে আসছিলো।
সামজিকভাবে একাধিকবার বসা হলেও এর কোন সুরাহা হয়নি।
যার ফলশ্রুতিতে গত ১৪ই এপ্রিল দুপুরে উল্লেখিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ বেআইনি ভাবে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে উক্ত পুকুরের মাছ ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফার ভাতিজা মো: এনাম হোসেন হোসেন বাধা দিলে বিবাদীগণ তার উপর অতর্কিত হামলা করে। তার শোর চি“কারে অপরাপর বিবাদীগণ ছুটে আসলে বিবাদীগণ তাদের উপর দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়।
উক্ত ঘটনায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফার ছেলে মো: আব্দুল মোতালেব, ২ ভাতিজা এনাম হোসেন ও মো: শাহরিয়া গুরুতর আহত হয়। এনাম হোসেন অবস্থা আশংকা জনক দেখে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়।
এ বিষয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফা বলেন- দীর্ঘদিন যাবত এ বিবাদীগণ আমাদেরকে বিভিন্ন রকম ভয়-ভীতি প্রদর্শন কওে আসছে। এখন আবার আমাদেও প্রাণে মেওে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমরা এ ঘটনায় সুষ্ঠ বিচার চাই।
এ বিষয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ত্রিনাথ সাহা বলেন- একটি অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Renaissance

আমাদের ওয়েসাইটে আপনাকে স্বাগতম। আপনাদের আশে পাশের সকল সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করুন
আপডেট সময় ০৬:৪৪:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
৩০ বার পড়া হয়েছে

চৌদ্দগ্রামে পুকুরের মালিকানা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা

আপডেট সময় ০৬:৪৪:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাতিসা দেবীপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফার যৌথ মালিকানা পুকুরকে কেন্দ্র কওে প্রতিপক্ষের হামলায় ৩জন গুরুতর আহত হয়েছে। এঘটনায় চৌদ্দগ্রাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়।
অভিযোগের আলোকে জানা যায়- বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফা বসত বাড়ির সামনে একটি পুকুর রয়েছে। উক্ত পুকুরের মালিকানা নিয়ে একই গ্রামের মেহরাজ মজুমদার, শিপন মজুদার, ফয়সাল আহমেদ, রাতুল মজুমদার ও কামরুল হাসান রবিন গংদেও সাথে বিরোধ চলে আসছিলো।
সামজিকভাবে একাধিকবার বসা হলেও এর কোন সুরাহা হয়নি।
যার ফলশ্রুতিতে গত ১৪ই এপ্রিল দুপুরে উল্লেখিত বিবাদীগণ সম্পূর্ণ বেআইনি ভাবে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে উক্ত পুকুরের মাছ ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফার ভাতিজা মো: এনাম হোসেন হোসেন বাধা দিলে বিবাদীগণ তার উপর অতর্কিত হামলা করে। তার শোর চি“কারে অপরাপর বিবাদীগণ ছুটে আসলে বিবাদীগণ তাদের উপর দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়।
উক্ত ঘটনায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফার ছেলে মো: আব্দুল মোতালেব, ২ ভাতিজা এনাম হোসেন ও মো: শাহরিয়া গুরুতর আহত হয়। এনাম হোসেন অবস্থা আশংকা জনক দেখে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করা হয়।
এ বিষয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোস্তফা বলেন- দীর্ঘদিন যাবত এ বিবাদীগণ আমাদেরকে বিভিন্ন রকম ভয়-ভীতি প্রদর্শন কওে আসছে। এখন আবার আমাদেও প্রাণে মেওে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমরা এ ঘটনায় সুষ্ঠ বিচার চাই।
এ বিষয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ত্রিনাথ সাহা বলেন- একটি অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।