ঢাকা ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অনিবন্ধিত বা অবৈধ স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানগুলোর বিষয়ে কঠোর স্বাস্থ্য মন্ত্রীর

কুমিল্লায় হবে ক্যান্সার হাসপাতাল

স্টাফ রিপোর্টার:

নিবন্ধিত ডাক্তাররা অনিবন্ধিত বা লাইসেন্সবিহীন কোন প্রতিষ্ঠানে চিকিৎসা সেবা দিতে পারবেন না বলেই স্পষ্ট জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন। চিকিৎসক ও রোগীর সুরক্ষায় সংসদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা আইন পাস করা হবে বলেও – জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী । বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত কুমিল্লা, নোয়াখালী, চাঁদপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ও পরিচালকসহ অন্যান্য চিকিৎসকদের সাথে মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মহাপরিচালক এবিএম খুরশিদ আলমের সভাপতিত্বে সভায় আরো অংশ নেন কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদদস্য আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার ও কুমিল্লা সিটি মেয়র তাহসিন বাহার সূচনা, কুমিল্লা জেলা প্রশাসকসহ সহ অন্যান্যরা।

আলোচনা সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী চিকিৎসকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমি যেমন চিকিৎসকদের মন্ত্রী তেমনি আমি রোগীদের ও মন্ত্রী। তাই স্বাস্থ্য সুরক্ষা আইন পাস করতে সংসদে বিল উত্থাপন করা হবে। বিদেশে চিকিৎসা নিরোৎসাহিত করতে তিনি দেশে চিকিৎসকদের আরো বেশি সেবা মনোভাবী হওয়ার অনুরোধ জানান। স্থানীয় সংসদ সদস্যের দাবির প্রেক্ষিতে কুমিল্লায় একটি ক্যান্সার হাসপাতাল নির্মাণেরও প্রতিশ্রুতি দেন মন্ত্রী।
কুমিল্লায় হবে ক্যান্সার হাসপাতাল পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বৈকালিক স্বাস্থ্য সেবা চালু করতে আবারও উদ্যোগ নেয়া হবে। এছাড়া যেসব সরকারি প্রতিষ্ঠানে ডায়াগনস্টিক ও প্যাথলজির ব্যবস্থা রয়েছে সব জায়গায় ওই ওই হাসপাতালে রোগীদের বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাতে হবে।
বিভিন্ন অবৈধ ক্লিনিক ও হাসপাতাল বন্ধের বিষয়ে মন্ত্রী জানান, সকল প্রতিষ্ঠানকেই শর্ত পূরণ করে তাদের স্বাস্থ্য সেবা করার পক্ষে আমরা। আমরা চাই না কোন স্বার্থ সবার প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাক। তবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণের সহায়তায় সকল অনিবন্ধিত বা অবৈধ স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানগুলোর বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া যেতে পারে।
এর আগে সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতাল ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পরিদর্শন করে রোগীদের সাথে কথা বলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Renaissance

আমাদের ওয়েসাইটে আপনাকে স্বাগতম। আপনাদের আশে পাশের সকল সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করুন
আপডেট সময় ০৮:২৪:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪
৪৬ বার পড়া হয়েছে

অনিবন্ধিত বা অবৈধ স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানগুলোর বিষয়ে কঠোর স্বাস্থ্য মন্ত্রীর

কুমিল্লায় হবে ক্যান্সার হাসপাতাল

আপডেট সময় ০৮:২৪:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

নিবন্ধিত ডাক্তাররা অনিবন্ধিত বা লাইসেন্সবিহীন কোন প্রতিষ্ঠানে চিকিৎসা সেবা দিতে পারবেন না বলেই স্পষ্ট জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন। চিকিৎসক ও রোগীর সুরক্ষায় সংসদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা আইন পাস করা হবে বলেও – জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী । বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত কুমিল্লা, নোয়াখালী, চাঁদপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ও পরিচালকসহ অন্যান্য চিকিৎসকদের সাথে মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মহাপরিচালক এবিএম খুরশিদ আলমের সভাপতিত্বে সভায় আরো অংশ নেন কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদদস্য আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার ও কুমিল্লা সিটি মেয়র তাহসিন বাহার সূচনা, কুমিল্লা জেলা প্রশাসকসহ সহ অন্যান্যরা।

আলোচনা সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী চিকিৎসকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমি যেমন চিকিৎসকদের মন্ত্রী তেমনি আমি রোগীদের ও মন্ত্রী। তাই স্বাস্থ্য সুরক্ষা আইন পাস করতে সংসদে বিল উত্থাপন করা হবে। বিদেশে চিকিৎসা নিরোৎসাহিত করতে তিনি দেশে চিকিৎসকদের আরো বেশি সেবা মনোভাবী হওয়ার অনুরোধ জানান। স্থানীয় সংসদ সদস্যের দাবির প্রেক্ষিতে কুমিল্লায় একটি ক্যান্সার হাসপাতাল নির্মাণেরও প্রতিশ্রুতি দেন মন্ত্রী।
কুমিল্লায় হবে ক্যান্সার হাসপাতাল পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বৈকালিক স্বাস্থ্য সেবা চালু করতে আবারও উদ্যোগ নেয়া হবে। এছাড়া যেসব সরকারি প্রতিষ্ঠানে ডায়াগনস্টিক ও প্যাথলজির ব্যবস্থা রয়েছে সব জায়গায় ওই ওই হাসপাতালে রোগীদের বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাতে হবে।
বিভিন্ন অবৈধ ক্লিনিক ও হাসপাতাল বন্ধের বিষয়ে মন্ত্রী জানান, সকল প্রতিষ্ঠানকেই শর্ত পূরণ করে তাদের স্বাস্থ্য সেবা করার পক্ষে আমরা। আমরা চাই না কোন স্বার্থ সবার প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাক। তবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণের সহায়তায় সকল অনিবন্ধিত বা অবৈধ স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানগুলোর বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া যেতে পারে।
এর আগে সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতাল ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পরিদর্শন করে রোগীদের সাথে কথা বলেন।