ঢাকা ০৩:২১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

ইউএনও’র উদ্যোগে ব্যারিয়ার পেলো অরক্ষিত রেল ক্রসিং

নিজস্ব প্রতিবেদক

গাজীপুরের কালীগঞ্জে আড়িখোলা স্টেশনের অদূরে কাপাসিয়া সড়ক সংলগ্ন তুমলিয়া এলাকায় রেল ক্রসিংটি অরক্ষিত ছিল। সেখানে গত ৫ জুলাই রাত ২টার দিকে মাইক্রোবাসকে ধাক্কায় দেয় ট্রেন। এতে মাইক্রোবাসের চালক মো. আল আমিন (৩৫) নিহত হন। আহত হন ৫ যাত্রী। এক সপ্তাহের ব্যবধানে ওই স্থানে আরেকটি দুর্ঘটনা ঘটে।
ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আজিজুর রহমান। এ সময় স্থানীয়রা ইউএনও’র কাছে ওই অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ে এক জোড়া ব্যারিয়ারের দাবি জানান। ইউএনও তাদের আশ্বস্ত করেন।

আগের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারাও ওই অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ে ব্যারিয়ার স্থাপনের চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু, আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে তা হয়নি। স্থানীয়রা ধরেই নিয়েছিলেন, এটি হয়ত আর হবে না। কিন্তু, ইউএনও মো. আজিজুর রহমান নিজ উদ্যোগে মাত্র দুই মাসের মধ্যে দুর্ঘটনাপ্রবণ এই রেল ক্রসিংয়ের দুই পাশে ব্যারিয়ার স্থাপন করেছেন। শুধু তা-ই নয়, তিনি মাঝে মাঝে ওই এলাকায় উপস্থিত থেকে পথচারী ও গাড়িচালকদের সচেতন করার পাশাপাশি ক্রসিংসহ রাস্তাটিতে শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এতে রেল দুর্ঘটনা কমবে বলে মনে করেন স্থানীয়রা।

এ ব্যাপারে ইউএনও মো. আজিজুর রহমান বলেন, ঢাকা বাইপাস রোডে নির্মাণকাজ চলমান থাকায় কালীগঞ্জের ভেতরের এই রাস্তাটিতে যানবাহন চলাচলের পরিমাণ আগের চেয়ে অনেক গুণ বেড়েছে। ফলে, দুর্ঘটনাও বাড়ছে। জুলাই মাসের শুরুতে এক সপ্তাহের ব্যবধানে ওই স্থানে দুটি দুর্ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও বলেন, অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ে ব্যারিয়ার স্থাপনের ক্ষেত্রে প্রক্রিয়াগত কারণে কয়েক মাস সময় লাগবে বলে জানায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সেজন্য বসে না থেকে জনগণের নিরাপত্তার বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আমি নিজ উদ্যোগ ও অর্থায়নে গত ২৮ জুলাই পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় ব্যারিয়ার দুটি স্থাপন করি।

উল্লখ্য, ৩৪তম বিসিএস ক্যাডারের কর্মকর্তা আজিজুর রহমান বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষে (বেজা) দেড় বছরের বেশি সময় কাজ করার পর পদোন্নতি পেয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দেন। দুই মাসের মধ্যেই তিনি বেশকিছু ব্যতিক্রমী কাজ করে উপজেলাবাসীর মন জয় করেছেন।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Renaissance

আমাদের ওয়েসাইটে আপনাকে স্বাগতম। আপনাদের আশে পাশের সকল সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করুন
আপডেট সময় ০২:৩৯:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ অগাস্ট ২০২৩
২২ বার পড়া হয়েছে

ইউএনও’র উদ্যোগে ব্যারিয়ার পেলো অরক্ষিত রেল ক্রসিং

আপডেট সময় ০২:৩৯:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ অগাস্ট ২০২৩

গাজীপুরের কালীগঞ্জে আড়িখোলা স্টেশনের অদূরে কাপাসিয়া সড়ক সংলগ্ন তুমলিয়া এলাকায় রেল ক্রসিংটি অরক্ষিত ছিল। সেখানে গত ৫ জুলাই রাত ২টার দিকে মাইক্রোবাসকে ধাক্কায় দেয় ট্রেন। এতে মাইক্রোবাসের চালক মো. আল আমিন (৩৫) নিহত হন। আহত হন ৫ যাত্রী। এক সপ্তাহের ব্যবধানে ওই স্থানে আরেকটি দুর্ঘটনা ঘটে।
ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আজিজুর রহমান। এ সময় স্থানীয়রা ইউএনও’র কাছে ওই অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ে এক জোড়া ব্যারিয়ারের দাবি জানান। ইউএনও তাদের আশ্বস্ত করেন।

আগের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারাও ওই অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ে ব্যারিয়ার স্থাপনের চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু, আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে তা হয়নি। স্থানীয়রা ধরেই নিয়েছিলেন, এটি হয়ত আর হবে না। কিন্তু, ইউএনও মো. আজিজুর রহমান নিজ উদ্যোগে মাত্র দুই মাসের মধ্যে দুর্ঘটনাপ্রবণ এই রেল ক্রসিংয়ের দুই পাশে ব্যারিয়ার স্থাপন করেছেন। শুধু তা-ই নয়, তিনি মাঝে মাঝে ওই এলাকায় উপস্থিত থেকে পথচারী ও গাড়িচালকদের সচেতন করার পাশাপাশি ক্রসিংসহ রাস্তাটিতে শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এতে রেল দুর্ঘটনা কমবে বলে মনে করেন স্থানীয়রা।

এ ব্যাপারে ইউএনও মো. আজিজুর রহমান বলেন, ঢাকা বাইপাস রোডে নির্মাণকাজ চলমান থাকায় কালীগঞ্জের ভেতরের এই রাস্তাটিতে যানবাহন চলাচলের পরিমাণ আগের চেয়ে অনেক গুণ বেড়েছে। ফলে, দুর্ঘটনাও বাড়ছে। জুলাই মাসের শুরুতে এক সপ্তাহের ব্যবধানে ওই স্থানে দুটি দুর্ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও বলেন, অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ে ব্যারিয়ার স্থাপনের ক্ষেত্রে প্রক্রিয়াগত কারণে কয়েক মাস সময় লাগবে বলে জানায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সেজন্য বসে না থেকে জনগণের নিরাপত্তার বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আমি নিজ উদ্যোগ ও অর্থায়নে গত ২৮ জুলাই পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় ব্যারিয়ার দুটি স্থাপন করি।

উল্লখ্য, ৩৪তম বিসিএস ক্যাডারের কর্মকর্তা আজিজুর রহমান বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষে (বেজা) দেড় বছরের বেশি সময় কাজ করার পর পদোন্নতি পেয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দেন। দুই মাসের মধ্যেই তিনি বেশকিছু ব্যতিক্রমী কাজ করে উপজেলাবাসীর মন জয় করেছেন।