ঢাকা ০৩:২৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খান আইএসইউ উপাচার্য পদে পুনরায় নিয়োগ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটি (আইএসইউ) উপাচার্য পদে পুনরায় নিয়োগ পেয়েছেন অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খান। আগামী চার বছরের জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. সাহাবুদ্দিন তাকে এ পদে নিয়োগ দেন এবং ১৬ এপ্রিল, ২০২৪ (মঙ্গলবার) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্যের অনুমোদনক্রমে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১০-এর ধারা ৩১ (১) অনুযায়ী অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খানকে উপাচার্য পদে নিয়োগ প্রদান করা হলো।

মানসম্পন্ন উচ্চ শিক্ষায় অঙ্গীকারবদ্ধ ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটির উপাচার্য হিসেবে পুনরায় নিয়োগ পাওয়ায় বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন গবেষক অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খানকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, আইএসইউ বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার এ, কে, এম, মোশাররফ হুসাইন এবং ভাইস-চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আতিকুর রহমান।

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের গবেষক হিসেবে তাঁর ৫০-এর অধিক গবেষণা প্রবন্ধ বিভিন্ন দেশী ও বিদেশী জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। তিনি ৬০-এর অধিক এমফিল ও পিএইচডি গবেষক-এর তত্ত্বাবধায়ক ও পরীক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

অধ্যাপক ড. খান ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর থানাধীন সাতুরিয়া গ্রামে ১৯৪৮ সালে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম রুস্তুম আলী খান ও মাতা মরহুমা ছাহেরা খাতুন বিদ্যোৎসাহী ও দানশীল হিসেবে খ্যাত ছিলেন। তিনি ১৯৬৮ সালে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড হিসেবে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগ থেকে কৃতিত্বের সাথে ব্যাচেলর অব কমার্স ও ১৯৭০ সালে মাস্টার অব কমার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি ১৯৭৩ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যবস্থাপনা বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন।

১৯৮৭ সালে অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খান পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন। এরপর ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত অধ্যাপক হিসেবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেস এর অধ্যাপক ও ডীন হিসেবে জুন ’৯৭ থেকে জুলাই ২০০০ পর্যন্ত দায়িত্বরত ছিলেন। এছাড়া ও তিনি বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ডীন হিসেবে ২০ বছরেরও বেশি সময় অধ্যাপনা করেছেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Renaissance

আমাদের ওয়েসাইটে আপনাকে স্বাগতম। আপনাদের আশে পাশের সকল সংবাদ দিয়ে আমাদের সহযোগীতা করুন
আপডেট সময় ১১:৪৫:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
৪৮ বার পড়া হয়েছে

অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খান আইএসইউ উপাচার্য পদে পুনরায় নিয়োগ

আপডেট সময় ১১:৪৫:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটি (আইএসইউ) উপাচার্য পদে পুনরায় নিয়োগ পেয়েছেন অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খান। আগামী চার বছরের জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. সাহাবুদ্দিন তাকে এ পদে নিয়োগ দেন এবং ১৬ এপ্রিল, ২০২৪ (মঙ্গলবার) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্যের অনুমোদনক্রমে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১০-এর ধারা ৩১ (১) অনুযায়ী অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খানকে উপাচার্য পদে নিয়োগ প্রদান করা হলো।

মানসম্পন্ন উচ্চ শিক্ষায় অঙ্গীকারবদ্ধ ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটির উপাচার্য হিসেবে পুনরায় নিয়োগ পাওয়ায় বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন গবেষক অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খানকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, আইএসইউ বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার এ, কে, এম, মোশাররফ হুসাইন এবং ভাইস-চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আতিকুর রহমান।

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের গবেষক হিসেবে তাঁর ৫০-এর অধিক গবেষণা প্রবন্ধ বিভিন্ন দেশী ও বিদেশী জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। তিনি ৬০-এর অধিক এমফিল ও পিএইচডি গবেষক-এর তত্ত্বাবধায়ক ও পরীক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

অধ্যাপক ড. খান ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর থানাধীন সাতুরিয়া গ্রামে ১৯৪৮ সালে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম রুস্তুম আলী খান ও মাতা মরহুমা ছাহেরা খাতুন বিদ্যোৎসাহী ও দানশীল হিসেবে খ্যাত ছিলেন। তিনি ১৯৬৮ সালে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড হিসেবে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগ থেকে কৃতিত্বের সাথে ব্যাচেলর অব কমার্স ও ১৯৭০ সালে মাস্টার অব কমার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি ১৯৭৩ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যবস্থাপনা বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন।

১৯৮৭ সালে অধ্যাপক ড. আব্দুল আউয়াল খান পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন। এরপর ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত অধ্যাপক হিসেবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেস এর অধ্যাপক ও ডীন হিসেবে জুন ’৯৭ থেকে জুলাই ২০০০ পর্যন্ত দায়িত্বরত ছিলেন। এছাড়া ও তিনি বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ডীন হিসেবে ২০ বছরেরও বেশি সময় অধ্যাপনা করেছেন।